জলে ডুবে জলের প্রলাপ

চোখে তার পূর্ণিমা  ভয়াবহ রাত
হয়রান কেঁদে কেটে
দিবসের ভাঙে ভাজ।

জানুয়ারী ২০১৬

চকোলেটি রাত
উড়ে যাও যাও উড়ে তুমি
গায়ে মেখে সমুদ্র প্রপাত।

জানুয়ারী ২০১৬

বাড়ী ফিরে যাও
নিয়ত অধীর তুমি
বরফ গলা নদীর স্বাদ
পাহাড় উঁচিয়ে চৈতন্য
বাঁকা-আঁকা ঘূর্ণন পথ

চাদর জড়িয়ে নিও গো রঙিন
শৈত্যবহে সুরক্ষিতে সইও
লোমশ চাদরে আরো
গভীরনিবেশে মগ্ন হইও।

নভেম্বর ২০১৫

যন্ত্রণার বদ্ধ খাঁচায় নেমে এলাম
দূরে আহা রাক্ষুসী বাঘ
সুঠাম অবয়ব তুলে নাভি বিন্দুতে
চিরল ধারে মেদিনী কাঁপায়
হরিণ শাবক ত্রস্ত উঠে দাঁড়ায়–
ঝড় তুলবে তিরতির জল হাওয়ায়
বনান্তে নিঃশ্বাস ঝরে
বিকট শব্দে কড়্মড়ে ভাঙ্গে ডাল।।

নভেম্বর ২০১৫

কেটে যায় নজর বছর ভাবনায়
হা-পিত্যেশে মোড়া কলিজা
চায়ের সুবাস খুঁজে নিতে চায়।

মুক্তোর দানা ছড়িয়ে আছে যে নর্তকী
তার রূপের গন্ধ ছুঁতে
আমলকির স্বাদ জিভে পুরি।

মার্চ ২০১৫

ওর সাথে ভালবাসা কপাট তুলে রাখে
ওর সাথে ভালবাসা দুলে দুলে উঠে
ওর চোখে ঘুম নামে নৈশ স্বপন
ওর পাশে ভয়ে ভয়ে চোখ মেলে শয়ন
ওর পায়ে পায়চারী মনিরত্নম
ওর পাশে ছুটে আসি হৃদয়ঙ্গম।

জানুয়ারী ২০১৬

মেয়ে তুমি জঘন্য দৃষ্টিতে করো খুন
শরীরে আছে যত অণু পরম-গুণ

ভাইরাসে আক্রান্ত ফুসফুস
ফিরে আসে উদ্বেলিত শ্বাস
ময়ূর মনের তৃষার আগুন

কী যে স্নিগ্ধ পুস্প আধার
সফেদ, আহা সফেদ তুষার
এঁকে বেঁকে ধুপধাপ তার
পদচ্ছাপ।

তৃষিত তোমার ওষ্ঠে
তুষার স্নিগ্ধ জল
সত্যি স্বতঃ টলমল
কী এক নাভিশ্বাস!

অক্টোবর ২০১৫

এক তৃষার ছায়া ছড়িয়ে পড়ে
মেলে দেয়া সর্পিল চুলে
ঢুলু ঢুলু সুগন্ধ মাখে
বণিক চোখের দৃষ্টি

কী যে পেলে মুগ্ধ চেতন
আহা অপূর্ব শোভন
মাঝরাত গড়িয়ে কার ভাঙে ঘোর
– গাড়িতে আনাগোনা

শলতে হাতে আগুণ জ্বালালে
আত্মাহুতি দেবে অস্থির পোকা
তাহারা আগুন আহারে রপ্ত
উফ্‌, খুব যে ভীষণ উত্তপ্ত!

অক্টোবর ২০১৫

সাগরের তল থেকে তুলে মাটি
লেপ্টে দেবো
তোমার নিদেন নাভিমূলে

কাতর আহবানের কিঞ্চিৎ জ্বালা
সর্পযুগল বুঝে গেছে
দূরন্ত দাপাদাপি জল-কিনারে
ভেজা শরীর সমাচ্ছন্ন জ্বরে

কাহিল কাতর দেহ চোখ তুলে
উর্ধ্বমুখী ওঠে চাঁদ
ঈশ্বর জ্বালাময়ী জলের দৈর্ঘ্য
নিত্যই বাড়িয়ে পাতে ফাঁদ।।

অক্টোবর ২০১৫

১০

কমিয়ে গেলে রাতের বিলাপ
কমনীয় মোহে জড়িয়ে
কী যে আগুন হলো পাষাণ
রক্তে নোনা চিড় ধরিয়ে

শান্ত সাগর ভরে শুধু ধোঁয়া ধোঁয়া জ্বর
নীরব বিছুটি পাতা ছড়িয়েছে রক্তাক্ত
আঁচড়
ছিল না বাকি কিছুই সহিষ্ণুতা শরম

চৌঁচির হলে বিশুষ্ক চর
মিলিত হতে থাকে জলে
ভর জোয়ারের প্রহর।।

মার্চ ২০১৬

Advertisements

তথ্য কণিকা শামান সাত্ত্বিক
নিঃশব্দের মাঝে গড়ে উঠা শব্দে ডুবি ধ্যাণ মৌণতায়।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: