লেখকের পরিভ্রমণ[লেখকের জন্য পৌরাণিক কাঠামো] নায়ক:৩ -ক্রিস্টোফার ভগ্লার

লেখকের পরিভ্রমণ[লেখকের জন্য পৌরাণিক কাঠামো] নায়ক:১ -ক্রিস্টোফার ভগ্লার
লেখকের পরিভ্রমণ[লেখকের জন্য পৌরাণিক কাঠামো] নায়ক:২ -ক্রিস্টোফার ভগ্লার

অন্য আর্কিটাইপে (মৌলরুপে) নায়কত্ব

কখনো কখনো নায়কের মৌলরূপ প্রধান চরিত্রে প্রতীয়মান নয়, যে মুখ্য চরিত্র সাহসিকতার সাথে খারাপদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে জয়ী হয়। নায়কের মৌলরুপ অন্য কোন চরিত্রে সুস্পষ্ট হয়ে উঠতে পারে, যখন তারা নায়কোচিতভাবে সক্রিয় হয়। একটি অনায়কসুলভ চরিত্র নায়ক হয়ে উঠতে পারে। গুঙ্গা ডিন (Gunga Din)-এর নাম ভূমিকায় অভিনীত চরিত্র সবমিলিয়ে ভাঁড় বা জোকারের আর্কিটাইপে আরম্ভ করে, কিন্তু প্রাণপণে নায়কে উন্নীত হয়ে উদ্যমী হয়ে উঠে। খুবই সংকটকালীন মূহুর্তে নিজের বন্ধুদের জন্য নিজেকে উৎসর্গ করে, সে নায়ক হওয়ার অধিকার অর্জন করে। স্টার ওয়ারস (Star Wars)-এ ওবি ওয়ান কেনোবি (Obi Wan Kenobi) গল্পের বেশিরভাগ অংশে সুস্পষ্টভাবে বিজ্ঞ পরামর্শদাতা (mentor)-র ভূমিকা পালন করে। যাহাই হক, সে নায়কোচিত আচরণ করে এবং অস্থায়ীভাবে নায়কের মুখোশ পরিধান করে যখন সে লিউক (Luke)- কে ডেথ স্টার (Death Star) থেকে পালাতে সাহায্য করতে নিজের জীবনকে উৎসর্গ করে।

এটা খুবই কার্যকরী হতে পারে যদি কোন খলচরিত্রে বা শত্রুভাবাপন্ন চরিত্রে অনাকাঙ্খিতভাবে নায়কের গুণাবলী প্রতীয়মান হয়ে উঠে। আমেরিকার টিভির এক ধারাবাহিক কমেডিতে (সিটকম), ড্যানি ডেভিটো-র তুচ্ছ “ট্যাক্সি” প্রেরক লুই হঠাৎ উন্মোচন করে যে, তার একটা কোমল হৃদয় আছে অথবা সে মহৎ কিছু করেছে, তখনই সিটকমের এই এপিসোডটি এমি এওয়ার্ড জয় করে। এক দুঃসাহসী খলনায়ক, কোন না কোন ভাবে নায়কোচিত, আবার অন্যদের কাছে তুচ্ছ হয়েও খুবই আবেদনময় হয়ে উঠতে পারে। আদর্শগতভাবে, প্রত্যেক পরিপূর্ণ ও সামঞ্জস্যপূর্ণ চরিত্রে সব ধরণের মৌলরূপ প্রতিভাত হওয়া উচিত, কারণ মৌলরূপগুলো পরিপূর্ণ ব্যক্তিত্ব গড়ে উঠার বিচ্ছিন্ন অভিব্যক্তিসমূহ।

চরিত্রের ত্রুটিসমূহ

কোন চরিত্রের আকর্ষণীয় ত্রুটিগুলো চরিত্রটিকে মানবিক করে তুলে। নায়কের অবস্থানে এলে আমরা নিজেদের কিছু কিছু করে চিনতে পারি। কেননা, তখন আমরা আমাদের অন্তর্নিহিত সন্দেহবাদিতা, ভুল চিন্তাধারা, অতীতের অপরাধবোধ, মানসিক আঘাত, অথবা ভবিষ্যত আশংকা অতিক্রম করার চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়। দুর্বলতা, ত্রুটিপূর্ণতা, অদ্ভুদ আচরণ, বদভ্যাস তাৎক্ষণিকভাবে নায়ক বা অন্য কোন চরিত্রকে আরো বেশি বাস্তব ও আকর্ষণীয় করে তোলে। এটা মনে হয় যে, চরিত্র যত বেশি দ্বন্দ্বগ্রস্থ ও মানসিক স্থৈর্যহীন হবে, ততবেশি শ্রোতা-দর্শক তাদের পছন্দ করবে এবং চরিত্রে মাঝে নিজেদের খুঁজে পাবে।

কোন চরিত্রের ত্রুটি চরিত্রটিকে কোথাও নিয়ে যাবে – যাকে বলা যায় চরিত্রটিকে পরিণতি (character arc) দেবে। চরিত্রটি ‘A’ অবস্থান হতে উত্তীর্ণ হয়ে ‘Z’ অবস্থানে পৌঁছবে পর্যায়ক্রমে ধারাবাহিক পদক্ষেপে। ত্রুটিই হলো অসম্পূর্ণতা বা অপূর্ণতার শুরুর পর্যায়, যা থেকে চরিত্র উত্তরণের দিকে ধাবিত হয়। কোন চরিত্রের মধ্যে অসম্পূর্ণতা থাকতে পারে। সম্ভবতঃ নায়ক (নায়িকা)-র কোন রোমান্টিক সঙ্গী নেই এবং সে তার জীবন পূর্ণ করতে সে অসম্পূর্ণ অংশটা খুঁজছে। এটা রূপকথার গল্পে প্রায়ই রূপকায়িত হয় যে, নায়ক তার পরিবারে কাউকে হারানো বা মৃত্যুর অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছে। অনেক রূপকথার গল্প শুরু হয় পিতার মৃত্যু অথবা ভাই বা বোনের অপহরণের মধ্য দিয়ে। পরিবারের একক থেকে পরিবারের সদস্যের এই বিয়োগ গল্পের উত্তেজনাময় ভিত্তিকে গতিশীল করে তোলে। এবং এই গতিশীলতা থেমে যায় না, যতক্ষণ না নতুন পারিবারিক বন্ধন বা পুরনো সদস্যদের পুনর্মিলনের মাধ্যমে পূর্বের পারিবারিক ভারসাম্য পুনঃস্থাপন হয়।

সবচেয়ে আধুনিক গল্পে নায়কের ব্যক্তিত্বই পরিপূর্ণভাবে পুনঃর্নিমাণ বা পুনঃস্থাপিত হয়। হারানো বা অসম্পূর্ণ অংশ হতে পারে ব্যক্তিত্বের সংকটপূর্ণ উপাদান যেমন, ভালবাসতে পারা অথবা বিশ্বাস করার সামর্থ্য। নায়ককে কিছু সমস্যা অতিক্রম করতে হতে পারে যেমন, ধৈর্যহীনতা বা সিদ্ধান্তহীনতা। দর্শক-শ্রোতা নায়কের ব্যক্তিত্বের সমস্যায় হিমসিম খেতে দেখা যেমন পছন্দ করে, তেমনি পছন্দ করে এই সমস্যা হতে উত্তরণ হতে দেখতে। প্রেটি ওমেন (Pretty Woman) ছায়াছবির ধনী এবং শীতল হৃদয়ের ব্যবসায়ী, বিল এডওয়ার্ড (Will Edward), প্রাণবন্ত ভিভিয়ান (Vivian)-এর প্রভাবে উষ্ণ হয়ে উঠে এবং পরবর্তীতে বিল ভিভিয়ানের চার্মিং প্রিন্স-এ রুপায়িত হয়। ভিভিয়ান কি কিছু আত্ম-সন্মান অর্জন করবে এবং তার পতিতা জীবন থেকে বেরিয়ে আসবে? অর্ডিনারী পিওপল (Ordinary People)-এর অপরাধে নিমজ্জিত কিশোর কনরাড কি ভালবাসা গ্রহণ এবং ঘনিষ্ঠ হওয়ার হারানো সামর্থ্য পুনরুদ্ধার করবে? আসলেই কি তাই নয়!

বিবিধ ধরণের নায়ক

নায়কেরা আসে বিভিন্ন রূপে – ইচ্ছুক বা অনিচ্ছুক নায়ক হয়ে, দলবদ্ধভাবে বা একাকী নায়ক হয়ে, প্রতিনায়ক হয়ে, ট্রাজিক নায়ক হয়ে, অনুঘটক নায়ক হয়ে। অন্য সব মৌলরূপের মত, নায়ক হলো একটা নমনীয় ধারণা, যা বিভিন্ন ধরণের ক্ষমতাই প্রকাশ করতে পারে। নায়কেরা অন্য আর্কিটাইপ বা মৌলরূপগুলোকে সমন্বয় করতে পারে সংকরধর্মী ছলনাকারী প্রতারক (Trickster) নায়কে পরিণত হতে। অথবা তারা অস্থায়ীভাবে অন্য আর্কিটাইপের মুখোশ পড়ে হয়ে উঠতে পারে, বিভিন্ন রূপ-পরিগ্রাহী (Shapeshifter), বিজ্ঞ পরামর্শদাতা (mentor) থেকে অন্যকিছু, অথবা এমনকি কোন প্রতিচ্ছায়া।

যদিও সচরাচর ইতিবাচক চরিত্র হিসেবে নায়ক চিত্রায়িত হয়, কিন্তু সে তার অহংবোধের (ego) অন্ধকার বা নেতিবাচক দিককে প্রকাশ করতে পারে। নায়কের মৌলরূপ সাধারণতঃ মানুষের আত্মার ইতিবাচক দিকের প্রতিনিধিত্ব করে, আবার দেখাতে পারে দুর্বলতার পরিণতি এবং নিজের ভূমিকা গ্রহণের অনিচ্ছুকতা।

ইচ্ছুক এবং অনিচ্ছুক নায়কেরা

দেখা যাচ্ছে, নায়কেরা দুই জাতের। প্রথম জাত হলো ইচ্ছুক, সক্রিয়, প্রবল উৎসাহী স্বভাবের। দুঃসাহসিক রোমাঞ্চকর অভিযানে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, সন্দেহহীন। সাহসিকতার সাথে সবসময় সামনে এগিয়ে যায়। আত্মপ্রণোদিত। দ্বিতীয় জাত হলো অনিচ্ছুক, সন্দেহবাদী, দ্বিধাগ্রস্থ এবং নিস্ক্রিয় জড় স্বভাবের। এই জাতের নায়কদের আত্মপ্রণোদনা (self-motivation) অর্জন আবশ্যক, এবং শুধুমাত্র বাহ্যিক শক্তির প্রভাবের কারণেই তারা রোমাঞ্চকর অভিযানে প্রবেশ করে। উভয় জাতের নায়কই বিনোদনধর্মী গল্প সৃষ্টি করে, যদিও যে নায়ক সবসময় জড় স্বভাবের সে কোন অসংলগ্ন উটকো নাটকীয় অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে পারে। অনিচ্ছা পোষণকারী নায়কের জন্য উত্তম হলো গল্পের কোন এক মূহুর্তে তার মাঝে পরিবর্তন আসা, প্রয়োজনীয় প্রণোদনা প্রাপ্তির পর তার রোমাঞ্চকর অভিযানের প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হওয়া।

প্রতিনায়কেরা

প্রতিনায়ক হলো খুবই বিপদজনক একটা শব্দ যা প্রচুর বিভ্রান্তি তৈরি করতে পারে। সোজা কথায় বললে, একজন প্রতিনায়ক নায়কের বিপরীত কেউ নয়, কিন্তু এক বিশেষ ধরণের নায়ক, যে আইনের চোখে অপরাধী বা সমাজের দৃষ্টিতে দুর্বৃত্ত। কিন্তু যার প্রতি দর্শক-শ্রোতাদের মুলতঃ সহানুভূতি আছে। আমরা এই ধরণের সমাজ বহির্ভূত লোকের সাথে পরিচিত, কারণ আমরা সবাই জীবনের কোন না কোন সময় নিজেদের সমাজ বহির্ভূত মনে করি।

দুই জাতের প্রতিনায়ক আছে। প্রথম জাতের হলো, সে চরিত্ররা, যারা বড় বেশি গতানুগতিক নায়কদের মত আচরণ করে। কিন্তু তাদের আছে নৈরাশ্যবাদের তীব্র ছোঁয়া অথবা হতোদ্যম অনুভূতি। যেমন, দি বিগ স্লিপ (The Big Sleep) এবং ক্যাসাব্লাঙ্কা (Casablanca)-য় বোগার্ট (Bogart)-এর অভিনীত চরিত্ররা। দ্বিতীয় ধারার হলো, ট্রাজিক নায়কেরা – গল্পের কেন্দ্রীয় চরিত্র, যে পছন্দনীয় বা আকর্ষণীয় নাও হতে পারে। এমনকি যার কর্মকান্ডকে আমরা নিন্দা করি। যেমন, ম্যাকবেথ (Macbeth) অথবা স্কারফেস (Scarface), অথবা মামী ডিয়ারেস্ট ((Mommie Dearest)-এর জোওন ক্রফোর্ড (Joan Crawford)।

হতোদ্যম প্রতিনায়ক কখনো বা নিস্প্রভ বীরযোদ্ধা, এক নিঃসঙ্গ মানুষ, যে কি না সমাজ ত্যাগ করেছে বা সমাজ তাকে ত্যাগ করেছে। এই চরিত্রগুলো শেষতক জিতে যেতে পারে এবং পুরো সময় জুড়ে দর্শক-শ্রোতার পুরো সহানুভূতি পেতে পারে। সমাজের চোখে তারা হলো রবিন হুড (Robin Hood)-এর মতই জাতিচ্যুত, শঠ দস্যু অথবা ডাকাতদের নায়ক, অথবা বোগার্ট অভিনীত চরিত্রগুলো। তারা হলো প্রায়ই সন্মানিত ব্যক্তি, যারা সমাজের কলুষ থেকে মুক্ত। তারা সম্ভবতঃ প্রাক্তন পুলিশ বা সৈন্য, যাদের মোহমুক্তি ঘটেছে এবং আইনের ছত্রচ্ছায়ায় বর্তমান কর্মকান্ড চালাচ্ছে , হয় ব্যক্তিগত তদন্তকারী হিসেবে, বা চোরাকারবারী হিসেবে, বা জুয়াড়ী হিসেবে, অথবা রোমাঞ্চ-প্রিয় সৈনিক হিসেবে। আমরা এই চরিত্রগুলোকে ভালবাসি, কেননা তারা বিদ্রোহী এবং তারা সমাজের অনিয়ম, অসংগতির বিরুদ্ধাচরণ করে, যা আমরাও করে থাকি। এই ধরণের অন্য আর্কিটাইপ রিবেল উইদাউট এ কস (Rebel Without a Cause) এবং ইস্ট ইডেন (East of Eden)-এ জেমস ডীন অভিনীত চরিত্রে মূর্ত হয়ে উঠেছে। দি ওয়াইল্ড ওয়ান (The Wild One)-এ যুবক মার্লোন ব্রান্ডো (Marlon Brando) অভিনীত চরিত্রে সম্পূর্ণ ভিন্ন এক নতুন প্রজন্মের পুরাতনের প্রতি অসন্তুষ্টি ফুটেছে। এই ঐতিহ্য বর্তমানে বয়ে নিয়ে চলেছে মিকে রুউরক (Mickey Rourke), ম্যাট ডিলোন (Matt Dillon), শন পেন (Sean Penn)-এর মত অভিনেতারা।

দ্বিতীয় জাতের প্রতিনায়ক হলো অনেকটা ট্রাজিক নায়কের ক্লাসিক বা উচ্চাঙ্গ ধারণা। এরা হলো ত্রুটিপূর্ণ নায়ক, যারা কখনো অতিক্রম করতে পারে না তাদের ভেতরের অশুভ সত্ত্বাকে এবং নিজেরাই নিজেদের পতন এবং ধ্বংসকে অনিবার্য করে তোলে। তারা হতে পারে আকর্ষণীয় বা মনোমুগ্ধকর গুণবিশিষ্ট। কিন্তু তাদের ত্রুটিগুলোই শেষমেশ জয়ী হয়। কিছু ট্রাজিক প্রতিনায়ক এত আকর্ষণীয় গুণবিশিষ্ট নয়। কিন্তু আমরা তাদের পতনকে মোহাবিষ্ট হয়ে দেখি কারণ সেখানে, ঈশ্বরের ইচ্ছায় আমি যাচ্ছি (there, but for the grace of God, go I.). প্রাচীন গ্রীকদের মত, যারা অদিপাস (Oedipus)-এর পতন প্রত্যক্ষ করেছে, তাদের মত আমরা আমাদের আবেগকে পরিশোধিত করি এবং আমরা একই ধরণের পতন এড়িয়ে যেতে শিখি, যখন আমরা স্কারফেস (Scarface)-এ আল পাচিনো (Al Pacino)-র চরিত্র, গরিলা ইন দা মিস্ট (Gorillas in the Mist)-এ ডায়ান ফোসি (Dian Fossey) চরিত্রে সিগোরনি ওয়েবার (Sigourney Weaver), অথবা লুকিং ফর মিস্টার গুডবার (Looking for Mr. Goodbar)-এ ডায়ান কিটোন (Diane Keaton) অভিনীত চরিত্রের ধ্বংস বা বিনাশ দেখি।

Advertisements

তথ্য কণিকা শামান সাত্ত্বিক
নিঃশব্দের মাঝে গড়ে উঠা শব্দে ডুবি ধ্যাণ মৌণতায়।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: